rss
প্রকাশ : ০৫ জুন ২০১৩, ১২:৩০:২০ | আপডেট : ০৫ জুন ২০১৩, ১৮:০০:৩০অ-অ+
printer

পদ্মা সেতুর দরপত্র ৩০ জুন

সমকাল প্রতিবেদক


দীর্ঘ প্রতিক্ষীত পদ্মা সেতু প্রকল্পের মূল সেতুর দরপত্র আহ্বান করা হবে আগামী ৩০ জুন।পদ্মা সেতুর দরপত্র ৩০ জুন



বুধবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর সেতু ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। পদ্মা সেতু প্রকল্পের জাজিরা প্রান্তে সংযোগ সড়ক নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগে চুক্তি সইয়ের পর এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।


 


মন্ত্রী জানান, ৯ হাজার ১৭২ কোটি টাকা ব্যয়ে পদ্মা সেতুর মূল কাজের দরপত্র আগামী ৩০ আহ্বান করা হবে। তবে তা ৩০ জুনের ২/১ দিন আগেও হতে পারে।


 


দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো পদ্মা সেতু প্রকল্পে ঋণ দিতে বিশ্ব ব্যাংকসহ কয়েকটি আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি হয়েছিল। ২৯০ কোটি ডলারে ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতু নির্মাণে বিশ্ব ব্যাংক ১২০ কোটি ডলার ঋণ দেয়ার কথা ছিল। এছাড়া এডিবি ৬১ কোটি, জাইকা ৪০ কোটি ও আইডিবিও ১৪ কোটি ডলার ঋণ দিতে চুক্তি করে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে। তবে পরবর্তী সময়ে প্রকল্পের পরামর্শক নিয়োগ নিয়ে 'দুর্নীতির' অভিযোগ তুলে ঋণ সহায়তা বাতিল করে বিশ্ব ব্যাংক। একই সঙ্গে সরে যায় অন্য দাতা সংস্থারাও।


 


এরপর নিজস্ব অর্থায়নে সেতু প্রকল্পটি বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ।


 


সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের জানান, পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা। আর সেতু নির্মাণ করতে প্রায় সাড়ে ৪ বছর সময় লাগবে।


 


তিনি জানান, জাজিরা প্রান্তের সংযোগ সড়কের জন্য ঠিকাদার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে এএমএল-এইচসিএমজেভি (বাংলাদেশ-মালয়শিয়া)। তাদের সঙ্গে সেতু বিভাগের এক হাজার ৯৭ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছে।


 


এ চুক্তিতে সই করেন পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম এবং ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এএমএল-এইচসিএমজেভি প্রতিনিধি আবিদ হাবিব।


 


মন্ত্রী বলেন, “জাজিরা প্রান্তে উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে রয়েছে ৪ লেন বিশিষ্ট ১০. ৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ রাস্তা, ১৯টি বক্স কালভার্ট, ৮টি আন্ডারপাস, ১২ কিলোমিটার সার্ভিস রোড, ৩ কিলোমিটার লোকাল রোড এবং রাস্তার প্রস্থ ২৭.৬ মিটার।”


 


এছাড়া টোল প্লাজা, টোল অফিস, পুলিশ পোস্ট, ইমার্জেন্সি বিল্ডিং ও সার্ভিস এরিয়াও নির্মাণ করা হবে বলে জানান তিনি।


 


বাজেটে পদ্মা সেতু প্রকল্পে বরাদ্দ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) ঘোষিত জাতীয় বাজেটে পদ্মা সেতু নির্মাণে ৬ হাজার ৮৫২ কোটি টাকা রাখার প্রস্তাব করা হবে। এ ব্যাপারে অর্থমন্ত্রী বিস্তারিত বিবরণ দেবেন।”


 


যোগাযোগমন্ত্রী জানান, ৯৫ কোটি টাকা ব্যয়ে পদ্মানদীর তীর সংরক্ষণের কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি এই কাজের উদ্বোধন করেন।


 


তিনি বলেন, “মাওয়া এ্যাপ্রোচ সড়ক ও সার্ভিস এরিয়া-২ কাজের দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। আগামী জুলাই মাসের মধ্যে দরপত্র গ্রহণ করা হবে।”


 


পদ্মা সেতু প্রকল্পের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ ও পুনর্বাসন কাজের শতকরা ৯৫ ভাগ কাজ শেখ হয়েছে বলেও জানান যোগাযোগমন্ত্রী।


 


চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সেতু বিভাগের সচিব, যোগযোগ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সেতু বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীরাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


 

এ সংক্রান্ত আরো খবর
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
powered by :
Copyright © 2014. All rights reserved